• মাধুকর প্রতিনিধি
  • তারিখঃ ২৫-৫-২০২৩, সময়ঃ রাত ০৭:৪০
  • ৯৮ বার দেখা হয়েছে

পীরগঞ্জে নদী খননকাজে বাঁধা খনন যন্ত্র আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

পীরগঞ্জে নদী খননকাজে বাঁধা খনন যন্ত্র আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

পীরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার মিঠিপুর ইউনিয়নের নলেয়া নদী খননকাজে ব্যবহৃত স্ক্যালভেটর(ভেকু) এ আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। গত বুধবার দিবাগত রাত ২ টার দিকে একবারপুর পূর্ব পাড়ায় নলেয়া নাদীতে এ ঘটনা ঘটে। পরে অন্য একটি ভেকুতে কাদা পানি ডিদযে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা হয়। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, 

উপজেলা একবারপুর পূর্ব পাড়ায় মরা খাল  (নলেয়া নদী) খনন কাজ শুরু করে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। কাজ শুরু'র দিন বিকেলে স্থানীয় দুই ব্যক্তি যুবক নদীর খাস জমি নিজেদের দাবি করে খনন কাজে বাঁধা দেয়। অই রাতেই ৫০ লক্ষ টাকা মুল্যের খনন যন্ত্রে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়।

স্থানীয়রা জানান, বৃটিশ আমলের খরস্রােতা নদী কালক্রমে মরা নদীর রুপ নেয়ার সুযোগে স্থানীয় কতিপয় প্রভাবশালী ভুমি অফিসের কতিপয় অসৎ কর্মকর্তার যোগমাজোসে নদীর জমি নিজেদের নামে পত্তন করে নেয়। এরপর দীর্ঘদিন ধরে তারা চাষাবাদ করে আসছে। ফলে বর্তমানে ওই জমিগুলো নিজেদের বলে দাবি করছেন। এদিকে ভরাট হওয়ায় আশপাশের এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে বর্ষা ও শুস্ক ২ মওসুমেই নদী সংলগ্ন জমিগুলো অনাবাদী থাকছে। হালে সরকার মরা নদী খননের উদ্যোগ নেয়। সেই কর্মসুচির অংশ হিসেবে বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ নলেয়া নদী খনন কাজ হাতে নেয়।

গত বছর সাড়ে পাচ  কিঃ মিঃ নদী খনন করা হয়েছে। এ বছরও প্রায় ২ কিঃ মিটার নর্দী খনন কাজ শুরু করেছে। এদিকে স্থানীয় একটি কুচক্রি মহল সুযোগ নিয়ে বিএনপি নেতা মৌলভী হাফিজার রহমান ও হাসেম আলীর নেতৃত্বে খনন কাজ আটকে দেয়ার দায়িত্ব নিয়ে  নদী সংলগ্ন জমি মালিকদের কাছে ৫’শ হতে ২ হাজার টাকা হারে চাঁদা তুলে ১০ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেন।

এরপর তারা কিছু সংখ্যক লোক নিয়ে দায়সারা ধরনের মানববন্ধনসহ নানা ধরনের কর্মসুচি দিতে থাকেন। যার অংশ হিসেবে খননযন্ত্র পুড়িয়ে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। এর আগে মধ্য এপ্রিলে বরেন্দ্র কর্তৃপক্ষ কাজ তদারকীতে এলে বিএনপি নেতা হাফিজার ও তার লোকজন তাদের মারধর করে ও মোবাইল ক্যামরা ভাংচুর করে। ওই ঘটনায় ৪ জনকে আসামী করে পীরগঞ্জ থানায় গত ১৭ এপ্রিল পীরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের হয়।

বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ) পীরগঞ্জ জোন রংপুর অফিস জানায়,'ভূ-উপরিস্থ পানির সর্বোত্তম ব্যবহার ও বৃষ্টির পানি সংরক্ষণের মাধ্যমে বৃহত্তর রংপুর জেলায় সেচ সম্প্রসারণ " প্রকল্পের অধীনে  পীরগঞ্জ উপজেলায় প্রায় সাড়ে নয় কোটি টাকা ব্যয়ে ৩০ টি প্যাকেজে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ করছে। তবে আব্দুল মজিদ মিয়ার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কার্যাদেশ পাবার পর ১ দশমিক ৯৭০ কিলোমিটার নলেয়া নদী খনন কাজ শুরু করলে স্থানীয় লোকজন বুধবার দিনের বেলায় খনন কাজে বাঁধা দেয়।

পরদিন গভীর রাতে খননকৃত যন্ত্রে আগুন দেয়া হয়। বিএমডিএর পীরগঞ্জ জোন এর উপ-সহকারী প্রকৌশলী আবু সুফিয়ান জানান, যেহেতু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মাল খোয়া গেছে সেই ক্ষেত্রে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আইনগত ব্যবস্থা নেবেন। খবর লেখা পর্যন্ত এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল। ঘটনার সাথে জড়িত কেউ গ্রেফতার হয়নি। 
 

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়